মেনু নির্বাচন করুন

স্বল্পোন্নত দেশের

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে ওঠার যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতিপত্র পেয়েছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি (সিডিপি) এই স্বীকৃতিপত্র জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেনের কাছে হস্তান্তর করেছে।

নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় এ স্বীকৃতিপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া হয়। নিউইয়র্কে ত্রিবার্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে সিডিপি। সব ধাপ অতিক্রম করায় ২২ মার্চ বৃহস্পতিবার সাফল্য উদযাপন করবে বাংলাদেশ। স্বীকৃতিপত্র গ্রহণ করে রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উত্তরণ ‘দেশের জন্য মাইলফলক’।

জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কাউন্সিলের (ইকোসক) মানদণ্ড অনুযায়ী স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উত্তরণের ক্ষেত্রে বছরে একটি দেশের মাথাপিছু আয় কমপক্ষে ১ হাজার ২৩০ মার্কিন ডলার হতে হয়। বাংলাদেশে বর্তমানে মাথাপিছু আয় ১ হাজার ৬১০ মার্কিন ডলার। মানবসম্পদ সূচকে ৬৬ প্রয়োজন হলেও বাংলাদেশ ৭২.৯ অর্জন করেছে। অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচক ৩২ ভাগের কম হতে হয়। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের রয়েছে ২৪.৮ ভাগ।


Share with :

Facebook Twitter